শরীর সুস্থ ও নীরোগ রাখার উপায়গুলো কি কি?

শরীর হচ্ছে সব কিছুর মূল এটি অসুস্থ থাকলে মন খারাপ থাকে কাজে অনিহা তৈরি হয় জীবন কষ্টকর হয়ে উঠে তাই জীবন কে সুন্দর সুখীময় রাখতে শরীর সুস্থ থাকা একান্ত অত্যাবশ্যক আর এর জন্য আপনার করণীয় তালিকা বিশাল । তন্মধ্যে সামান্য কিছু তুলে ধরার প্রয়াস আমার :

পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকা :  নিয়মতি গোসল করা , সাবান ব্যবহার করা , পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন পরিবেশে বাস করা । নিজের ও চারপাশ পরিষ্কার রাখা। মানসম্মত পরিবেশ,পায়খানা ব্যবহার করা ।
খাদ্য গ্রহণ:পরিমিত এবং বিশুদ্ধ খাবার খাওয়া । বাসি পঁচা খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকা । সুষম পরিমাণে খাদ্য গ্রহণ করা । ভেজাল খাদ্য , ফলমালিন মেশানো খাবার গ্রহণে সতর্ক থাকা ।
নিয়মিত খেলাধুলা ও ব্যায়াম: শরীর সুস্থ রাখার জন্য ব্যায়ামের কোনো বিকল্প নেই । যা খেলাধুলার মাধ্যমে অর্জিত হয় । প্রতিদিন খেলা ধুলা করা । সর্বনিম্ন 30 মিনিট করি প্রতিদিন কিছু ব্যায়াম করা । এছাড়া হাটা,সাতার কাটা,সাইকেলিং বা ঘুরতে যাওয়া ।

সঠিক বিনোদন ও বিশ্রাম: শরীরের সাথে মনের সম্পর্ক । তাই নিয়মিত বিনোদনের একান্ত প্রয়োজন না হলে এক ঘেয়েমিতা তৈরি হবে যা মানসিক সমস্যা তৈরি করবে। শরীর বিসাদগ্রস্থ হয়ে পড়বে । এই জন্য সুন্দর মানসম্মত ছবি দেখা, খেলাধুলা উপভোগ করা , ঘুরে যাওয়া, বনভোজন,শিক্ষা সফর,বিতর্ক অনুষ্ঠান ইত্যাদি । এবং শরীর এক নাগারে কাজ করার ফলে ক্লান্ত হয়ে পড়ে এর জন্য বিশ্রামের একান্ত প্রয়োজন । তাই প্রতিদিন সঠিক পরিমাণে ঘুমানো। রাত না জাগা। রাতে বেশি রাত করে জেগে ফোন বা কম্পিউটার ব্যবহার না করা । সঠিক নিয়মে জীবনের প্রতিটিদিন অতিবাহিত করা ।
খারাপ অভ্যাস ত্যাগ: নেশা জাতীয় সকল প্রকার খারাপ অভ্যাস থেকে দূরে থাকা । এগুলোর কারণে শরীরে বাসা বাধে ক্যান্সার, উচ্চ রক্তচাপ, ব্রঙ্কাইটিস,ফুসফুসের প্রদাহ,ডাইবেটিস আরো নানা ধরণের মরণ ব্যাধি রোগ । এগুলো থেকে দূরে থাকতে হবে । এছাড়া নানা ধরণের খারাপ অভ্যাস যেমন খাওয়ার সময় কাচা লবণ খাওয়া উচ্চ রক্তচাপ সৃষ্টির কারণ। তাই খারাপ অভ্যাস পরিত্যাগ করা
ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চলা: ধর্ম মানুষকে সুখময় জীবন ও রোগমুক্ত জীবন পেতে সাহায্য করে । ধর্মীয় অনুশাসন পালনের মাধ্যমে রোগমুক্ত সুস্থ শরীর লাভ করা যায় ।
আশা করি আমি আপনাকে সুস্থ থাকার কয়েকটি উপায় বলে সামান্য পরিমাণে হলেও সাহায্য করতে পেরেছি । ধন্যবাদ আপনাকে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *